• মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৪ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

আমার রাজশাহী
২৪

চসিক নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন রেজাউল করিম

প্রকাশিত: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মেয়রপদে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী।

শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় গণভবনে দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় চসিকের মেয়র পদে মনোনয়ন চূড়ান্ত করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

চসিক নির্বাচনে মনোনয়ন পওয়া মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী রাজনীতিতে পোড় খাওয়া নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। আশির দশকে আওয়ামী লীগে বিভক্তির পর তিনি আবদুর রাজ্জাকের নেতৃত্বাধীন বাকশালে যোগ দেন। তবে বাকশাল বিলুপ্তির পর তিনি আবার আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে ফেরেন।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের রাজনীতে তার নিজস্ব কোনো বলয় নেই। তবে তিনি প্রয়াত সাবেক মেয়র মহিউদ্দীন চৌধুরীর অনুসারী ছিলেন। এর আগেও তিনি সংসদ নির্বাচনগুলোতে দলের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু পাননি। সর্বশেষ চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনে দলের মনোনয়ন চেয়ে ব্যর্থ হন। এমনকি চসিক নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার দৌড়েও তিনি আলোচনায় ছিলেন না। রেজাউল করিমকে চসিকের মেয়রপদে মনোনয়ন দেওয়াটা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার চমক হিসেবেই দেখছেন স্থানীয়রা।

চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, ‘রাজনৈতিক জীবনের শেষপ্রান্তে এসে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মূল্যায়ন করেছেন। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। আমি চট্টগ্রামবাসীর কাছেও কৃতজ্ঞ। আমি দীর্ঘসময় প্রয়াত নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে রাজনীতি করেছি। রাজনৈতিক জীবনে আমি কখনও আদর্শবিচ্যুত হইনি। আমি সবার সহযোগিতা নিয়ে নির্বাচনে জয়ী হয়ে চট্টগ্রামবাসীর সেবা করতে চাই। চট্টগ্রামবাসীর জন্য আমি জীবন উৎসর্গ করব।’

এর আগে শুক্রবার পর্যন্ত চসিকের মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে ২০ জন প্রার্থী ফরম সংগ্রহ করে জমা দেন বলে দলের দফতর সূত্র জানা যায়।

মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ছিলেন- বর্তমান মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী, সহসভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, সহসভাপতি নুরুল ইসলাম বিএসসি, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আবদুচ সালাম, মহানগর-৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মুজিবর রহমান, মেজর ইমদাদুল ইসলাম (আব.), মো. ইনসান আলী, মোহাম্মাদ ইউনুস, বঙ্গবন্ধু পরিবারের ঘনিষ্ঠ ও প্রথম মন্ত্রিসভার সদস্য জহুর আহমদ চৌধুরীর সন্তান ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন চৌধুরী তুফান, প্রাথমিক সদস্য সেলিনা খান, প্রাথমিক সদস্য মোহাম্মদ মনজুর আলম (সাবেক মেয়র), মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেখা আলম চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য এ কে এম বেলায়েত হোসেন, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মো. মাহাবুবুল আলম, এরশাদুল আমিন, মো. মনোয়ার হোসন ও দীপক কুমার পালিত।

এদিকে কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে দলীয় সমর্থন পেতে মোট ৪০৫ জন ফরম সংগ্রহ করেছেন। শনিবার গণভবনে বিকেল ৫টার দিকে তাদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিলের নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী এম মনজুর আলমের বর্জনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত ভোটে জয়ী হন আ জ ম নাছির।

আমার রাজশাহী
আমার রাজশাহী
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর