শনিবার   ০৪ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২১ ১৪২৬   ১০ শা'বান ১৪৪১

আমার রাজশাহী
৪২

বাঘায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণ, একজন গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজশাহীর বাঘায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে দুই বন্ধুর সহায়তায় ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে বাঘা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, লালপুর উপজেলার দুড়দুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীর (১৬) সাথে উত্তর মিলিকবাঘা গ্রামের শাহাবুদ্দিনের ছেলে পলাশ উদ্দিনের (১৮) মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক হয়। এই সম্পর্কের সুযোগ নিয়ে কৌশলে তাকে দুড়দুড়িয়া এলাকা থেকে বাঘা মঞ্জু ডায়াবেটিক সেন্টারে আনা হয়। সেখানে নাইট গার্ড নাসির উদ্দিনের সহযোগিতায় ধর্ষণ করে তাকে রেখে পালিয়ে যায় পলাশ। পরে মেয়েটি থানায় গিয়ে নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। এরপর বাঘা মঞ্জু ডায়াবেটিক সেন্টারের নাইট গার্ড নাসির উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। নাসির উদ্দিন উপজেলার উত্তর মিলিকবাঘা গ্রামের সাদেক আলীর ছেলে। আজ মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে এবং ধর্ষিতাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ধর্ষিতা জানান, দীর্ঘদিন থেকে পলাশের সাথে আমার সম্পর্ক ছিল। পরিবারের চাপে ১০ জানুয়ারি অন্য ছেলের সাথে আমাকে বিয়ে দেয়। কিন্তু পলাশের কারণে আমাকে স্বামীর পরিবার থেকে অত্যাচারিত হতে হয়েছে। তবে সোমবার কৌশলে আমাকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে দুই বন্ধুর সহায়তায় ধর্ষণ করে আমাকে রেখে পালিয়ে যায়। আমি নিরুপায় হয়ে থানায় এসে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই একজনকে আটক করা হয়েছে। তবে মূল আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

স/এমএস

আমার রাজশাহী
আমার রাজশাহী
এই বিভাগের আরো খবর