বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৯ ১৪২৬   ০৮ শা'বান ১৪৪১

আমার রাজশাহী
৩৭

স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা : স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ির কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০২০  

রাজশাহীর মোহনপুরে স্ত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে বিভিন্ন মেয়াদের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। আজ বুধবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে রাজশাহীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তালুকদার এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন।

এর মধ্যে স্বামী অসীত চক্রবর্তীকে (২৫) পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে আরও ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। এছাড়া শ্বশুড় অনীল চক্রবর্তী (৫৫) ও শ্বাশুড়ি মনজু রাণীকে (৪০) তিন বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে আরও ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। রায় ঘোষণার সময় তারা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর আদালতে থাকা রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলী (পিপি) অ্যাডভোকেট আহসান হাবীব রঞ্জু সাংবাদিকদের রায়ের এসব তথ্য নিশ্চত করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৭ নভেম্বর রাত সাড়ে ৯টার দিকে যৌতুকের দাবিতে স্বামীর অত্যাচার নির্যাতন সইতে না পেরে গৃহবধূ অনুভা চক্রবর্তী (২১) আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার খয়রা গ্রামের স্থানীয় অধিবাসী আহমেদ আলীর ভাড়া বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। ওই গৃহবধূ নিজর শরীরে কেরোসিনের ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেন। পরে তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসেন।

পরে তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে ছয়দিন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে ২৩ নভেম্বর বেলা ১টার দিকে হাসপাতালে অনুভা চক্রবর্তীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় অনুভা চক্রবর্তীর মামা অতুল কুমার চক্রবর্তী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলায় তদন্ত শেষে অনুভা চক্রবর্তীর স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ির বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ আনা হয়। এর পর ২০১৫ সালের ৩১ মে আদালতে এই মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন মোহনপুর থানা পুলিশ।

ওই মামলায় সাক্ষগ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বুধবার এই রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার পর আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়। আসামিপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট বেলাল উদ্দিন।

স/সা

আমার রাজশাহী
আমার রাজশাহী
এই বিভাগের আরো খবর