• মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

আমার রাজশাহী
৫৭

বাগমারায় বৃদ্ধকে পিটিয়ে জখম, আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৬ এপ্রিল ২০২০  

পূর্ব শক্রুতার জের ধরে রাজশাহীর বাগমারার এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। তাঁকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই বৃদ্ধের নাম আবদুস সাত্তার মোল্লাহ (৬২)। তিনি উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়নের বড়কয়া গ্রামের বাসিন্দা। ওই ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ আবদুর রউফ (৫০) নামের এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। হত্যার উদ্দেশ্যে তাঁর ওপর হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগে উল্ল্যেখ করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোববার রাতে বৃদ্ধ আব্দুস সাত্তার মোল্লাহ স্থানীয় ইসমাইলের মোড় থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন। তিনি বাড়ির অদূরে নির্জন স্থানে পৌঁছালে সেখানে আগ থেকে ওঁত পেতে থাকা সাজু, আমিনুল, আবদুর রউফসহ কয়েকজন ব্যক্তি তাঁর গতিরোধ করে। এসময় তাঁরা বৃদ্ধের মুখ চেপে ধরে লোহার রড দিয়ে পেটাতে থাকে এবং হাঁসুয়া দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এতে তিনি অচেতন হয়ে পড়লে মৃত ভেবে তাঁকে ফেলে চলে যায়।

ওই ঘটনার কয়েক ঘন্টা পর স্থানীয় একজন নারী আব্দুস সাত্তার মোল্লাহকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে বাড়িতে খবর দেন। পরিবারের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। রাতেই আহত বৃদ্ধের স্ত্রী মতিজান বিবি বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ভোরে অভিযান চালিয়ে আবদুর রউফ নামের একজন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।

মামলার বাদী জানান, তাঁর স্বামীর সঙ্গে আসামিদের পূর্ব থেকে বিরোধ ছিল। তারা দীর্ঘদিন ধরে হত্যার হুমকী দিয়ে আসছিলেন। হুমকীর অভিযোগে আদালতে মামলাও রয়েছে। হত্যার জন্য তাঁর স্বামীর ওপর হামলা করেছে। এছাড়াও তাঁর কাছে থাকা ধানবিক্রির ৫০ হাজার টাকাও ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। আসামিদের ভয়ে পরিবারের সদস্যরাও সন্ধ্যার পর বাড়ির বাইরে যেতে পারছে না। স্থানীয়ভাবে তারা সন্ত্রাসী হিসাবে পরিচিত।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, বৃদ্ধকে নির্মমভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত বৃদ্ধের চেতনা ফিরেনি। তাঁর পা ভেঙে যাওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার উপপরিদর্শক উছমান গণি বলেন, আব্দুর রউফ নামের এক আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যান্যদের আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

স/মা

আমার রাজশাহী
আমার রাজশাহী
রাজশাহী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর