সোমবার   ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৪ ১৪২৬   ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

আমার রাজশাহী
১৬

বাঘায় এতিমখানা ও বৃদ্ধাশ্রমে শীতবস্ত্র বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০২০  

রাজশাহীর বাঘায় উপজেলার সরেরহাট শিশু সদন ও বৃদ্ধাশ্রমে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব শাহরিয়ার আলম এমপির নিজস্ব অর্থায়নে তাদের মাঝে শীতবস্ত্র হিসেবে মানসন্মত ১শ’২০টি কম্বল বিতরণ করা হয়।

বুধবার (২২-০১-২০২০)বিকেলে মন্ত্রীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহি অফিসার শাহিন রেজা,বাংংলাদেশ আ’লীগ বাঘা উপজেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, আ’লীগের অন্যতম নেতা মাসুদ রানা তিলু,গড়গড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম এই শীতবস্ত্র বিতরণ করেন।

উপস্থিত ছিলেন, সরেরহাট কল্যাণী শিশু সদনের পরিচালক ও মমতাজ আজিজ বৃদ্ধাশ্রমের প্রতিষ্ঠাতা মেহেরুন্নেছা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আরিফুর রহমান,বাঘা প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল লতিফ মিঞা প্রমুখ।

‘সরের হাট কল্যাণী শিশু সদন’ ও  মমতাজ আজিজ বৃদ্ধাশ্রমটি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সরেরহাট গ্রামে অবস্থিত। জেলা শহর থেকে ৪৮ কিলোমিটার পূর্বে  উপজেলার একেবারে শেষ মাথায় পদ্মা নদীর তীর ঘেঁষে গ্রামটির অবস্থান। ১৯৮৪ সালে ১২শতাংশ জমি কিনে সেখানে প্রতিষ্ঠিত করা হয় এতিম খানা। যার প্রতিষ্ঠাতা হলেন পল্লী চিকিৎসক সামসুদ্দিন সরকার। সাদা মনের মানুষ হিসেবে একুশে পদক পেয়েছেন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান সমেস ডাক্তার।

এতিম শিশুদের পাশাপাশি বয়স্কদের কল্যাণে ফকরুল কবির রিপনের আর্থিক সহযোগিতায় সেখানে প্রতিষ্ঠা করেছেন ‘বৃদ্ধাশ্রম’। যার প্রতিষ্ঠাতা হলেন মেহেরুন্নেছা। সেখানে ঠাঁই পেয়েছে ১৬৬ জন এতিম শিশু আর ৬০ জন বৃদ্ধ। অসীম সৌন্দর্য আর ভালোবাসার মধ্যে তাদের বসবাস। যাদের অনেকেরই শীতবস্ত্র ছিলনা।

ডা. সামসুদ্দিন বলেন, বিগত বছরগুলোতে প্রয়োজনের তুলনায় শীতবস্ত্র পেলেও এবার তা পাননি।

স/সা

আমার রাজশাহী
আমার রাজশাহী
এই বিভাগের আরো খবর