• শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

আমার রাজশাহী
৫৮২

১৯২ কোটি টাকা জরিমানা দিতে হবে ভারতকে

প্রকাশিত: ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮  

বছর শেষ হওয়ার আগেই একটি বড় ধরনের ধাক্কা খেতে যাচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করে যে রাজস্ব আয় হয়েছিল, যথাযথভাবে তার ট্যাক্স প্রদান না করায় বিসিসিআইকে বছর শেষ হওয়ার আগেই ২৩ মিলিয়ন ডলার, ১৬১ কোটি রুপি (প্রায় ১৯২ কোটি টাকা) জরিমানা দিতে আইসিসির পক্ষ থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ভারতের দ্য স্টেটমেন্ট পত্রিকা জানিয়েছে এ খবর।

২০১৬ আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক ছিল ভারত। ওই বিশ্বকাপের আয়োজক হিসেবে স্বাগতিক ভারত যে রাজস্ব আয় করেছে, সেখান থেকে আয়কর বাবদ যে অর্থ দেয়ার কথা ছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে, সেটা প্রদান করেনি তারা। যে কারণে অর্থটা গুণতে হয়েছিল আইসিসিকেই।

আইসিসির পক্ষ থেকে ট্যাক্স বাবদ সেই অর্থ দাবি করা হয়েছে বিসিসিআিইয়ের কাছে। শুধু তাই নয়, চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই আইসিসিকে এই অর্থ পরিশোধ করতে হবে। নয়তো, ২০২৩ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আয়োজক হিসেবে ভারতের কাছ থেকে অধিকার কেড়ে নেয়া হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়েছে।

গত অক্টোবরে সিঙ্গাপুরে আইসিসি বোর্ড সভায় এই ব্যাপারে আলোচনা করা হয় এবং সেখানেই বিসিসিআই কর্মকর্তারা প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসেন, ২৩ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দেয়ার বিষয়ে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে বিসিসিআই কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় আইসিসির পক্ষ থেকে জরিমানার টাকা পরিশোধের জন্য তাগিদ দেয়া হয়। একই সঙ্গে ২০২৩ বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়ার মর্যাদা কেড়ে নেয়ারও হুমকি দেয়া হয়।

শুধু তাই নয়, আইসিসির পক্ষ থেকে আরও হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, প্রতি বছর আইসিসির রাজস্ব আয়ের যে অংশগুলো বিভিন্ন বোর্ডের জন্য নির্ধারিত, সময়মতো জরিমানার টাকা পরিশোধ করতে না পারলে, আইসিসি ভারতের সে অংশেও হাত বসাবে।

বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় একটি মিডিয়ায় বলা হয়েছে, বিসিসিআইর পক্ষ থেকে আইসিসির দাবি প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। উল্টো আইসিসির কাছে ভারতীয় বোর্ড দাবি করেছে, সিঙ্গাপুরে সংস্থাটির বৈঠকে বিসিসিআই যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছিল সেগুলোর প্রতিটি মিনিটের ভিডিও প্রকাশ করতে। কিন্তু আইসিসি জানিয়েছে, তাদের কাছে সেই ভিডিও নেই কিংবা এ ধরনের কোনো ভিডিও প্রকাশ করতে তারা বাধ্য নয়।

রিপোর্ট আরও জানাচ্ছে, ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলাকালীন বিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট ছিলেন এন শ্রীনিবাসন। তিনি নিজেও নাকি কোনো প্রতিশ্রুতি দেননি এমন কোনো ক্ষতিপূরণ দেয়ার ব্যাপারে, যদি সরকারের পক্ষ থেকে যদি আয়কর মাফ পাওয়া না যায়।

প্রসঙ্গত : ২০২১ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি এবং ২০২৩ সালে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে ভারত।

আমার রাজশাহী
আমার রাজশাহী
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর