ব্রেকিং:
রাজশাহীতে একদিনে শনাক্ত ৯৯ জন রাজশাহীতে ইসলামী ব্যাংকের শাখা লকডাউন গৌরবের ৬৭ বছর পেরিয়ে ৬৮ বছরে পর্দাপন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রাজশাহীতে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১ হাজার ১৭৪ জন রাবির নেপালি ছাত্র করোনায় আক্রান্ত রাজশাহীতে প্রতিদিন ৯৫ জন করে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগি রামেক হাসপাতালে আরেক লাশ ফেলে পালালেন স্বজনরা রামেক হাসপাতারে করোনায় মৃত রোগীর লাশ ফেলে পালালো স্বজনরা তানোরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ৬ জন রাসিকের কাউন্সিলর রুহুল আমিন টুনুসহ আক্রান্ত আরও ৮৪ ঢাকা থেকে রাজশাহীতে আমবাগান দেখতে আসা সেই শিশুটি ফিরে পেলেন বাবা সাবান কিনতে বাধ্য করায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা ইন্টার্ন চিকিৎসকদের সুরক্ষাসামগ্রী দিলেন এমপি বাদশা রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে আরও দুইজনের মৃত্যু রামেক হাসপাতালে হাইফ্লো অক্সিজেন মেশিন দিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্ রাজশাহীতে বিসিক শিল্পনগরী-২ প্রকল্পের ভূমি উন্নয়ন কাজ শুরু রাজশাহী বিভাগে করোনায় একদিনে মৃত্যু ৭ রাজশাহীর তানোরে ভিটামিন ও জ্বরের ওষুধ উধাও! করোনায় মারা গেছেন ইমেরিটাস প্রফেসর ড. ফখরুল রাজশাহীতে একদিনে বাড়ল ৭৮ জন, মোট আক্রান্ত ৯৮৮ রাজশাহীতে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ রাজশাহীতে বৃহস্পতিবারে করোনায় আক্রান্ত হলেন যেসব মানুষ জ্বর-শ্বাসকষ্টে রাজশাহীর সাবেক ফুটবলার কিরুর মৃত্যু রাজশাহীতে করোনায় নিউ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষকের মৃত্যু রাজশাহীর সব এলাকা রেড জোন রাজশাহী বিভাগে নতুন শনাক্ত ৪৭৫, সুস্থ ১০৭ রামেক হাসপাতাল পরিচালককে আরইউজের স্মারকলিপি রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে অবসরপ্রাপ্ত রাবি শিক্ষকের মৃত্যু বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এমপি এনামুলের অর্থ প্রদান রামেক হাসপাতালের ৬৭ জন চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত মুজিববর্ষে বেকারদের জন্য আসছে বঙ্গবন্ধু যুব ঋণ প্রকল্প রাজশাহী অঞ্চলে একদিনে করোনা সংক্রমিত শনাক্ত ২১৯, মৃত্যু ৫ রাজশাহী কারাগারের ডেপুটি জেলার ও ফার্মাসিস্টসহ করোনায় আক্রান্ত ৩ বাঘায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা, আহত ৮ রাজশাহীতে ১০ পুলিশ সদস্যসহ একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ৮৯ পুঠিয়া বিভিন্ন ব্রান্ডের নকল কসমেটিক তৈরির কারখানার সন্ধান পবায় চোর সিন্ডিকেটের সদস্যসহ মটরসাইকেল উদ্ধার রাজশাহীতে করোনার উপসর্গে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু রাজশাহীতে দুই ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ভোক্তা অধিদপ্তরের জরিমানা রাজশাহীতে দুই ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ভোক্তা অধিদপ্তরের জরিমানা বাংলাদেশিদের গড় আয়ু বেড়ে ৭২ বছর ৬ মাস রাজশাহীতে করোনায় পুলিশের এএসআই কালামের মৃত্যু রাজশাহীতে একদিনে ৬৯ জন শনাক্ত রাজশাহী বিভাগে নতুন মৃত্যু নেই, সুস্থ ২১৯ জন রাজপাড়া থানার ওসিসহ দুই পুলিশ সদস্য করোনা আক্রান্ত শিশু সন্তানসহ রামেক চিকিৎসক পরিবারের চার সদস্যের করোনা করোনা উপসর্গে প্রাণ গেলো রাবির রসায়ন বিভাগের ল্যাব সহকারীর পুঠিয়া থানার দুই পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত গোদাগাড়ীত সাঁন্তাল বিদ্রোহের ১৬৫তম দিবস উদযাপিত গোদাগাড়ীত সাঁন্তাল বিদ্রোহের ১৬৫তম দিবস উদযাপিত রাজশাহী বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় ২৪২ জন শনাক্ত, মৃত্যু ৭ রাজশাহী নগরীতে করোনায় ব্যবসায়ীর মৃত্যু নিয়মিত আদালত চালুর দাবীতে রাজশাহীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন কাঁকনহাট ফাঁড়ির তিন পুলিশ কনস্টেবল সংক্রমিত আম পরিবহনে সাড়া ফেলেছে ‘ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন’ রাজশাহী জেলা প্রশাসনের ত্রাণ তহবিলে নগদ অর্থ প্রদান চুয়েট শিক্ষার্থীর মোহনপুরে একদিনে করোনায় নতুন আক্রান্ত ১১ সুরক্ষাসামগ্রীর দাবিতে রামেক ইন্টার্ন চিকিৎসিকদের কর্মবিরতি রাজশাহীতে ২৪ ঘণ্টায় ২৬৮ জন শনাক্ত, সুস্থ ১১২ সাংবাদিক তবিবুর রহমান মাসুম আর নেই, মেয়র লিটনের শোক থেমে নেই রাসিকের স্বাস্থ্য বিভাগের নমুনা সংগ্রহের কাজ করোনায় আক্রান্তদের পরিবারের জন্য মেয়র লিটনের উপহার
  • সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

আমার রাজশাহী
সর্বশেষ:
রাজশাহীতে একদিনে শনাক্ত ৯৯ জন রাজশাহীতে ইসলামী ব্যাংকের শাখা লকডাউন গৌরবের ৬৭ বছর পেরিয়ে ৬৮ বছরে পর্দাপন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রাজশাহীতে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১ হাজার ১৭৪ জন রাবির নেপালি ছাত্র করোনায় আক্রান্ত রাজশাহীতে প্রতিদিন ৯৫ জন করে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগি রামেক হাসপাতালে আরেক লাশ ফেলে পালালেন স্বজনরা রামেক হাসপাতারে করোনায় মৃত রোগীর লাশ ফেলে পালালো স্বজনরা তানোরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ৬ জন রাসিকের কাউন্সিলর রুহুল আমিন টুনুসহ আক্রান্ত আরও ৮৪ ঢাকা থেকে রাজশাহীতে আমবাগান দেখতে আসা সেই শিশুটি ফিরে পেলেন বাবা সাবান কিনতে বাধ্য করায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা ইন্টার্ন চিকিৎসকদের সুরক্ষাসামগ্রী দিলেন এমপি বাদশা রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে আরও দুইজনের মৃত্যু রামেক হাসপাতালে হাইফ্লো অক্সিজেন মেশিন দিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্ রাজশাহীতে বিসিক শিল্পনগরী-২ প্রকল্পের ভূমি উন্নয়ন কাজ শুরু রাজশাহী বিভাগে করোনায় একদিনে মৃত্যু ৭ রাজশাহীর তানোরে ভিটামিন ও জ্বরের ওষুধ উধাও! করোনায় মারা গেছেন ইমেরিটাস প্রফেসর ড. ফখরুল রাজশাহীতে একদিনে বাড়ল ৭৮ জন, মোট আক্রান্ত ৯৮৮ রাজশাহীতে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ রাজশাহীতে বৃহস্পতিবারে করোনায় আক্রান্ত হলেন যেসব মানুষ জ্বর-শ্বাসকষ্টে রাজশাহীর সাবেক ফুটবলার কিরুর মৃত্যু রাজশাহীতে করোনায় নিউ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষকের মৃত্যু রাজশাহীর সব এলাকা রেড জোন রাজশাহী বিভাগে নতুন শনাক্ত ৪৭৫, সুস্থ ১০৭ রামেক হাসপাতাল পরিচালককে আরইউজের স্মারকলিপি রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে অবসরপ্রাপ্ত রাবি শিক্ষকের মৃত্যু বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এমপি এনামুলের অর্থ প্রদান রামেক হাসপাতালের ৬৭ জন চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত মুজিববর্ষে বেকারদের জন্য আসছে বঙ্গবন্ধু যুব ঋণ প্রকল্প রাজশাহী অঞ্চলে একদিনে করোনা সংক্রমিত শনাক্ত ২১৯, মৃত্যু ৫ রাজশাহী কারাগারের ডেপুটি জেলার ও ফার্মাসিস্টসহ করোনায় আক্রান্ত ৩ বাঘায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা, আহত ৮ রাজশাহীতে ১০ পুলিশ সদস্যসহ একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ৮৯ পুঠিয়া বিভিন্ন ব্রান্ডের নকল কসমেটিক তৈরির কারখানার সন্ধান পবায় চোর সিন্ডিকেটের সদস্যসহ মটরসাইকেল উদ্ধার রাজশাহীতে করোনার উপসর্গে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু বাংলাদেশিদের গড় আয়ু বেড়ে ৭২ বছর ৬ মাস রাজশাহীতে করোনায় পুলিশের এএসআই কালামের মৃত্যু রাজশাহীতে একদিনে ৬৯ জন শনাক্ত রাজশাহী বিভাগে নতুন মৃত্যু নেই, সুস্থ ২১৯ জন রাজপাড়া থানার ওসিসহ দুই পুলিশ সদস্য করোনা আক্রান্ত শিশু সন্তানসহ রামেক চিকিৎসক পরিবারের চার সদস্যের করোনা করোনা উপসর্গে প্রাণ গেলো রাবির রসায়ন বিভাগের ল্যাব সহকারীর পুঠিয়া থানার দুই পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত রাজশাহী বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় ২৪২ জন শনাক্ত, মৃত্যু ৭ রাজশাহী নগরীতে করোনায় ব্যবসায়ীর মৃত্যু নিয়মিত আদালত চালুর দাবীতে রাজশাহীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন কাঁকনহাট ফাঁড়ির তিন পুলিশ কনস্টেবল সংক্রমিত আম পরিবহনে সাড়া ফেলেছে ‘ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন’ রাজশাহী জেলা প্রশাসনের ত্রাণ তহবিলে নগদ অর্থ প্রদান চুয়েট শিক্ষার্থীর মোহনপুরে একদিনে করোনায় নতুন আক্রান্ত ১১ সুরক্ষাসামগ্রীর দাবিতে রামেক ইন্টার্ন চিকিৎসিকদের কর্মবিরতি রাজশাহীতে ২৪ ঘণ্টায় ২৬৮ জন শনাক্ত, সুস্থ ১১২ সাংবাদিক তবিবুর রহমান মাসুম আর নেই, মেয়র লিটনের শোক থেমে নেই রাসিকের স্বাস্থ্য বিভাগের নমুনা সংগ্রহের কাজ করোনায় আক্রান্তদের পরিবারের জন্য মেয়র লিটনের উপহার রাজশাহী বিভাগে আক্রান্ত ৫ হাজার, মৃত্যু ৭২ রাজশাহীতে করোনায় সম্মুখযোদ্ধার ৫৩ জন আক্রান্ত রাজশাহীর চারঘাটে পদ্মার পানি বাড়ছে, আতঙ্কে মানুষ রাজশাহীতে করোনার উপসর্গে ৭ জনের মৃত্যু
৪৮

বিএনপি ভোটেও ফেল, হরতালেও ফেল

বিভুরঞ্জন সরকার

প্রকাশিত: ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে ১ ফেব্রুয়ারি। নির্বাচনের ফলাফলে অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটেনি। ঢাকা উত্তরে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম। দক্ষিণে শেখ ফজলে নূর তাপস। বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ে পরাজয়বরণ করেছেন উত্তরে তাবিথ আউয়াল এবং দক্ষিণে ইশরাক হোসেন।

তবে এবার বিএনপি প্রার্থীরা নানা ধরনের অভিযোগ উত্থাপন সত্ত্বেও শেষপর্যন্ত ভোটের লড়াইয়ে ছিলেন। মাঝপথে রণেভঙ্গ দেননি। এবারের নির্বাচনে এটা একটি উল্লেখ করার মতো ইতিবাচক দিক। কিন্তু ভোটার উপস্থিত করার ক্ষেত্রে বিএনপির মনোযোগ ছিল বলে মনে হয় না। অবশ্য আওয়ামী লীগও হয়তো বেশি ভোটার উপস্থিতি চায়নি। এক ধরনের নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনের ব্যাপারে দুই দলেরই অঘোষিত ঐক্য ছিল বলে মনে করার যুক্তিসঙ্গত কারণ আছে।

নির্বাচনের আগে একাধিক লেখায় বলেছিলাম যে, আওয়ামী লীগ নির্বাচন করছে জয়ের জন্য। আর বিএনপির লক্ষ্য নির্বাচনকে বিতর্কিত করা, বিজয় অর্জন নয়। দুই দলেরই টার্গেট পূরণ হয়েছে। আওয়ামী লীগ জয় পেয়েছে। বিএনপি বিতর্কের মধ্যেই আছে। বিতর্কে নতুন মাত্রা যোগ করেছে ভোটারের কম উপস্থিতি।

এই যে ভোট দিতে মানুষের আগ্রহ কমে গেল, তার জন্য দায়ী কে বা কী, তা খুঁজে বের করা দরকার। ভোটাররা ভোটকেন্দ্র বিমুখ হলে গণতন্ত্রের জন্য তা সুখবর নয়। ভোটের প্রতি মানুষের আস্থা একদিনে কমেনি। দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রাম করে, অনেক আত্মদান, রক্তদানের পর আমরা দেশে গণতন্ত্র কায়েম করলেও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে শক্তিশালী ও সংহত করার ক্ষেত্রে আমাদের সাফল্য নেই। বরং দিন দিন আমরা এক জটিল অবস্থার দিকে ধাবিত হচ্ছি। রাজনৈতিক দলগুলো জনমতের প্রতিফলন ঘটিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় থাকা বা যাওয়ার চেয়ে কৌশলের খেলায় মেতে উঠেছে।

বিএনপি যেহেতু অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে অর্থাৎ হত্যা-সন্ত্রাস-সহিংসতার মাধ্যমে সরকারকে নাকাল-নাজেহাল করতে চায় সেহেতু সরকার তথা আওয়ামী লীগও বিএনপিকে দাবিয়ে রাখতে শক্তি প্রয়োগের কৌশল নিয়ে অগ্রসর হয়। ক্ষমতায় না থাকলে লক্ষ্য অর্জন সম্ভব নয়, তাই ক্ষমতায় থাকার জন্য নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন ব্যবস্থার আশ্রয় নিতে দ্বিধা করা হচ্ছে না। অবাধ নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ জিতবে না- ক্রমাগত এই প্রচারণা আওয়ামী লীগকে অবাধ নির্বাচনের ব্যাপারে সন্দিহান করে তুলেছে। আওয়ামী লীগ এবং তার সমর্থকরা মনে করেন, বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশে মৌলবাদ-ধর্মীয় উগ্রবাদের বিকাশ ঘটবে। বিএনপি-জামায়াতের অতীত শাসন এই ধারণার পক্ষে রায় দেয়।

দেশকে সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য আওয়ামী লীগের ক্ষমতায় থাকা দরকার- এটা বাইরের দুনিয়ার অনেক দেশও মনে করে বলেই আওয়ামী লীগ তার পছন্দমতো ভোটব্যবস্থা চালু করেও এক ধরনের মার্জনা পেয়ে যাচ্ছে। বিএনপি সময় ও পরিস্থিতির সঙ্গে মিলিয়ে চলতে পারছে না। তাই জয়ের বন্দরে পৌঁছাতে গেলে বিএনপিকে তার রাজনীতি বদলাতে হবে। জামায়াতের প্রশ্নে প্রকাশ্যে অবস্থান পরিবর্তন করতে হবে। নয়েও আছি, ছয়েও আছি করে বাংলাদেশের কিছু মানুষকে বিভ্রান্ত করা গেলেও জঙ্গিবাদ নিয়ে আতঙ্কিত বিশ্বসম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করা যাবে না।

মুজিববর্ষ উদযাপনের প্রাক্কালে ঢাকার মতো গুরুত্বপূর্ণ নগরীর মেয়র পদে আওয়ামী লীগ জয়ের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করবে- সেটাই ছিল প্রত্যাশিত। যারা অন্য কিছু ভেবেছিলেন, তারা আসলে কল্পলোকের বাসিন্দা। রাজনীতির কঠিন জমিতে যারা হাঁটাচলা করেন, যারা সরকার ও সরকারি দলের রাজনৈতিক কৌশল ধারাবাহিকভাবে অনুসরণ করেন তাদের এটা অজানা নয় যে, আওয়ামী লীগ এখনই পরাজিত হওয়ার জন্য প্রস্তুত নয়। আবার বিএনপির ভেতর-বাহির যারা জানেন, তাদেরও অজানা নয় যে, বিএনপি যতই জনপ্রিয়তার বড়াই করুক না কেন, বাস্তবে তাদের পায়ের নিচে শক্ত মাটি নেই।

তাছাড়া বিএনপির নির্বাচনী প্রচারণা কৌশলও ছিল ত্রুটিপূর্ণ। শুরু থেকেই বিএনপি প্রচারণা চালিয়ে আসছে যে তাদের জিততে দেয়া হবে না। জেনে শুনে তারা বিষপান করেছে। এসব বলে একদিকে তারা দলীয় কর্মী-সমর্থকদের মনোবল দুর্বল করে দিয়েছে, অন্যদিকে ভোটারদের মনে নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়েছে। ‘ভোট দিয়ে কী হবে, জিতবে তো আওয়ামী লীগ বা নৌকা’- এই প্রচারণা যদি অব্যাহতভাবে চালনা হয় তাহলে তা ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে উৎসাহিত করে না। ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ৩০ শতাংশের কম হওয়ার পেছনে বিএনপি এবং বিএনপি অনুরাগীদের নেতিবাচক প্রচারণা একটি বড় কারণ ছিল বলে মনে হয়। বিএনপির প্রচারণা ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে কোনোভাবেই উৎসাহিত করেনি।

ইভিএমের বিরোধিতাও বিএনপির জন্য সুবিধা দেয়নি। জনসমর্থন নিয়ে বিএনপি যে অহঙ্কার করে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন তা ভুল প্রমাণ করেছে। মানুষ দলে দলে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে নীরবে নিজ নিজ ভোটাধিকার প্রয়োগ করলে বিএনপির দাবি সত্য বলে ধরে নেয়া যেত। ঢাকা শহরে সব ভোটারের দলীয় পরিচয় শনাক্ত করা সহজ নয়। বিএনপি সমর্থকদের কপালে ধানের শীষ চিহ্ন আঁকা নেই। তাই চিনে চিনে বিএনপির ভোটারদের ভোট দিতে বাধা দেয়ার কাহিনী বিশ্বাসযোগ্য নয়। একটি অনিয়মের খবর অসংখ্য মিডিয়ায় প্রচার হওয়ায় মনে হয় নির্বাচনে বুঝি কোনো ভোটারই ভোট দিতে পারেননি। কিন্তু অবস্থা মোটেও তেমন নয়।

আমার নিজের অভিজ্ঞতা হলো, যারা ভোট দিতে চেয়েছেন তারা দিতে পেরেছেন। তার মানে কি এই যে ভোট খুব ভালো হয়েছে? না, অবশ্যই ভালো ভোট হয়নি। যে নির্বাচনে ৭০ শতাংশের বেশি ভোটার ভোটদানে বিরত থাকেন তাকে কোনোভাবেই ভালো বা আদর্শ নির্বাচন বলা যায় না। আবার এটাও ঠিক যে, অতীতের একটি নির্বাচনও পাওয়া যাবে না যেখানে জাল ভোটসহ কোনো না কোনো অনিয়ম হয়নি। বিএনপির জনসমর্থনের বায়বীয় অবস্থা ভোটে যেমন প্রতিফলিত হয়েছে, ভোটের পরের দিন বিএনপির ডাকা হরতালেও তা স্পষ্ট হয়েছে। মানুষ যদি ভোট-অনিয়মের বিরুদ্ধে খুব রুষ্ট হতো, বিক্ষুব্ধ হতো তাহলে হরতালে সব কিছু স্বাভাবিক থাকত না। জনজীবনে হরতালের সামান্য বিরূপ প্রভাব লক্ষ করা যায়নি। হরতাল ডেকে দলের নেতারা রাজপথে নামেননি। এমন একটি অকার্যকর হরতাল বিএনপির সাংগঠনিক দুর্বলতাকেই প্রকট করে তুলেছে। অনেককে তাই বলতে শোনা গেছে, বিএনপি ভোটেও ফেল, হরতালেও ফেল।

কিন্তু যা হয়েছে তা কি স্বাভাবিক? নির্বাচনের প্রতি মানুষের আস্থা ফিরে না আসলে কীভাবে গণতন্ত্র চর্চার পথ প্রসারিত হবে। আমরা সুড়ঙ্গের শেষে আলোর রশ্মি দেখতে চাই, নাকি হারিয়ে যেতে চাই অন্ধকার চক্রব্যুহে? পারস্পরিক দোষারোপের রাজনীতি থেকে বেরিয়ে এসে সত্য সন্ধানী হওয়ার কোনো বিকল্প আমাদের সামনে নেই।

লেখক : জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক।

আমার রাজশাহী
পাঠকের চিন্তা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর